20 C
Düsseldorf

‘যুক্তরাষ্ট্রে সেনা অভ্যুত্থান ঘটা উচিত’ – ফ্লিন

Must read

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাসে ৩০ মে অনুষ্ঠিত ‘কিউঅ্যানোন’ গ্রুপের সমাবেশে সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিন বক্তৃতা করার পর তিনি প্রশ্নোত্তর পর্বে বলেছেন, মিয়ানমারের মতো সামরিক অভ্যুত্থান ঘটা উচিত যুক্তরাষ্ট্রে।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারে নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে ১ ফেব্রুয়ারি সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখল করেছে। জেলে নিয়েছে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারের শীর্ষ কর্মকর্তাদের। আর এসব করা হয়েছে ভোট-জালিয়াতি আর প্রতারণার অভিযোগে।

সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীদের একজন প্রশ্ন করেছিলেন : ‘আমি জানতে চাই মিয়ানমারে যা ঘটেছে তা কি এখানে ঘটতে পারে না?’ জবাবে মাইকেল ফ্লিন বলেছেন, ‘কোনো কারণ থাকতে পারে না। আমি বলতে চাচ্ছি তা এখানে ঘটা উচিত। ’ ফ্লিনের এমন মন্তব্য টুইটারেও ছড়িয়ে পড়েছে। উল্লেখ্য, ট্রাম্পের সমর্থকরা গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে জঙ্গি হামলা চালিয়েছিল।

এ সংস্থার পক্ষ থেকে ট্রাম্পের ভাষায় নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট জালিয়াতি, ফলাফল ছিনতাইয়ের অভিযোগ করে আসছে। স্মরণ করা যেতে পারে, মার্কিন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল মাইকেল ফ্লিনকে ২০১৭ সালে জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টার পদ থেকে ট্রাম্প বরখাস্ত করেন। এর এক মাস আগে তাকে ওই পদে বসানো হয়েছিল।

আর অভিযোগ ছিল যে, ফ্লিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেঞ্চকে রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগের মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন। ম্যুলারের তদন্তে উপরোক্ত মিথ্যা তথ্য প্রদানের হদিস উদ্ঘাটনের পর মাইকেল ফ্লিন নিজের দোষ স্বীকার করেছিলেন। পরে অবশ্য তিনি সেই স্বীকারোক্তি প্রত্যাহার করেন এবং বিচার বিভাগ তাকে দায় থেকে মুক্তি দিলেও একজন ফেডারেল জজ বিষয়টি ঝুলিয়ে রেখেছিলেন অর্থাৎ তাকে জেলেই রাখা হয়েছিল। এমনি অবস্থায় গত নভেম্বরের নির্বাচনের আগমুহূর্তে ফ্লিনের প্রতি ট্রাম্প ক্ষমা ঘোষণা করেন।

- Advertisement -spot_img

More articles

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ আপডেট