9.1 C
Düsseldorf

কলম্বাস! কোথায় তার নিবাস!

Must read

গোলজার হোসাইন খান
গোলজার হোসাইন খান
আমি সোনালী ব্যাংক লিমিটেড এর একজন অবসরপ্রাপ্ত এসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার।অতি সাধারণ মানুষ। কোন উচ্চাভিলাষ নেই। সাংসারিক বোধবুদ্ধি শূন্যের কোঠায়। হেরে যাওয়া মানুষের পাশে থাকি।এড়িয়ে চলি স্বার্থপরতা।বিনম্র শ্রদ্ধায় নত হই সৃষ্টিশীল-পরিশ্রমী মানুষের প্রতি আর ভালবাসি আমার পেশাকে।

আমেরিকা কে আবিষ্কার করেছিলেন? উত্তরটা প্রায় সকলেরই জানা- ক্রিস্টোফার কলম্বাস। কিন্তু তিনি কোন দেশের নাগরিক, তা নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। কেউ বলেন, ইতালির জেনোয়া থেকে এসেছিলেন কলম্বাস। কারো মতে, তিনি ছিলেন স্প্যানিশ। আবার বিভিন্ন ঐতিহাসিক তথ্য ভেদে কলম্বাস পর্তুগিজ অথবা ক্রোয়েশিয়ান। ওই বিশ্বখ্যাত নাবিকের নাগরিকত্ব জানতে স্পেনের গ্রানাডা বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হলো আন্তর্জাতিক গবেষক সম্মেলন।

কলম্বাসের ‘নাগরিকসত্তা’ নিয়ে এমন বিভ্রান্তি অতীতে খুব একটা মাথাচাড়া দেয়নি। স্কুল পাঠ্যেও তাকে ইতালীয় নাবিক হিসেবেই দেখানো হয়েছে। কিন্তু, বিতর্কের সূত্রপাত ২০০৩ সালে। ওই বছর স্পেনের সেভিল শহরের এক ক্যাথিড্রাল সমাধিতে কিছু হাড়গোড় উদ্ধার হয়। গবেষকরা সেগুলোর ডিএনএ পরীক্ষা করান। তাতে জানা যায়, হাড়গোড়গুলো ৫১৫ বছর আগে মারা যাওয়া কলম্বাসের। শুরু হয়ে যায় তুমুল হইচই। আরো বিস্তারিত জানতে গবেষকরা উঠেপড়ে লেগে পড়েন।

কিন্তু বাধ সাধেন স্পেনের গ্রানাডা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। কেননা কলম্বাসকে নিয়ে তারা দীর্ঘ গবেষণা চালাচ্ছিলেন। ওই দলটি হাড়গোড় নিয়ে যাবতীয় তদন্ত মাঝপথে থামিয়ে দেয়। তাদের যুক্তি, হাড়গোড় পরীক্ষা করার ডিএনএ প্রযুক্তি উন্নত নয়। পরে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে ডিএনএ পরীক্ষা করে গবেষকরা মোটামুটি একমত হন যে হাড়গোড়গুলো কোনো এক ইউরোপীয় বংশজাতের। পাশাপাশি, গ্রানাডা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা কলম্বাসের ছেলে হার্নান্দো ও ভাই দিয়েগোর হাড়গোড়ও পরীক্ষা করেন। সেগুলো ইতিমধ্যেই ইউরোপ ও আমেরিকায় বংশ পরিচিতির তথ্য অনুসন্ধান সম্পর্কিত ল্যাবরেটরিতেও পাঠানো হয়েছে। সবমিলিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের গবেষকরা কলম্বাসকে নিয়ে নিজেদের মতো করে গবেষণা চালিয়েছেন। তাদের নিয়ে এবার একটি আন্তর্জাতিক গবেষক সম্মেলনের ডাক দিয়েছে গ্রানাডা বিশ্ববিদ্যালয়।

গত বুধবার ওই সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়। সেখানেই বিশ্বখ্যাত নাবিককে নিয়ে যাবতীয় কৌতূহলের পরিসমাপ্তি ঘটতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এই সম্মেলনেই গবেষকদের তদন্তধর্মী মতামত একত্রিত করে কলম্বাসের নাড়ি-নক্ষত্র সম্পর্কিত একটি পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে। আশা করা হচ্ছে, আগামী অক্টোবর মাস নাগাদ সেই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসবে। তখনই স্পষ্ট হয়ে যাবে, ঔপনিবেশিক কলম্বাস আদতে কোন দেশের নাগরিক।

- Advertisement -spot_img

More articles

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ আপডেট