এরিকসেনের জন্য ভালোবাসা

রাশিয়ার বিপক্ষে গোল করার পর ক্যামেরার সামনে গিয়ে ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের প্রতি ভালোবাসা জানিয়েছেন বেলজিয়ামের স্ট্রাইকার রোমেলু লুকাকু।

ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন ডেনমার্কের খেলোয়াড়, রোমেলু লুকাকু বেলজিয়ামের। কিন্তু দুজনের মধ্যে আছে শক্ত একটা বন্ধন। দুজনেই যে খেলেন ইতালির সিরি ‘আ’র দল ইন্টার মিলানে। কাল ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে ইউরোর ম্যাচ চলাকালে হঠাৎই মাঠে পড়ে যান এরিকসেন। মাঠেই প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। সেই ঘটনার পর কাল এবারের ইউরোতে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলতে মাঠে নামে বেলজিয়াম। রাশিয়ার বিপক্ষে সেই ম্যাচে গোল করার পর ক্লাব সতীর্থ এরিকসেনের প্রতি ভালোবাসা জানিয়েছেন বেলজিয়ামের স্ট্রাইকার লুকাকু।

ম্যাচের ১০ মিনিটে দ্রিস মের্টেনসের একটি পাস বক্সের মধ্যে পেয়ে ঠাণ্ডা মাথায় বল জালে পাঠান লুকাকু। টুর্নামেন্টে নিজের প্রথম গোলটি করে বেলজিয়ামের স্ট্রাইকার দৌড়ে চলে যান সাইডলাইনে। সতীর্থদের নিজের কাছে ডেকে নেন লুকাকু। এরপর কাছাকাছি থাকা টেলিভিশন ক্যামেরার দিকে যান তিনি। ক্যামেরাটা দুহাত দিয়ে টেনে নিয়ে চিৎকার করে বলতে থাকেন, ‘ক্রিস, ক্রিস (ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন), আমি তোমাকে ভালোবাসি।’
লুকাকু পরে গোল করেন আরও একটি। তাঁর জোড়া গোলের সঙ্গে টমাস মুনিয়ের গোল মিলিয়ে বেলজিয়াম রাশিয়াকে হারিয়েছে ৩–০ ব্যবধানে। ম্যাচ শেষে লুকাকু বলেছেন এরিকসেনের এভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ার খবর পাওয়ায় খেলাটা তাঁর জন্য কতটা কঠিন ছিল, ‘এটা ঠিক যে আমি ম্যাচটা উপভোগ করেছি। কিন্তু আমার জন্য ম্যাচটি খেলা অনেক কঠিন ছিল। কারণ, আমার মন তখন পড়ে ছিল সতীর্থ ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের পাশে।’
এরিকসেনের খবরটি শোনার পর মনের অবস্থা কী হয়েছিল সেটাও বলেছেন লুকাকু, ‘আমি অনেক কেঁদেছি। নিঃসন্দেহে আমি খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। আমার পরিবারের থেকেও তার সঙ্গে বেশি সময় কাটিয়েছি আমি।’ এরপর লুকাকু যোগ করেন, ‘তার জন্য শুভকামনা রইল। শুভকামনা রইল তার প্রেমিকা আর দুই বাচ্চা ও পরিবারের প্রতি।’ লুকাকু এখন এরিকসেনের দ্রুত সেরে ওঠা আশা করেন, ‘আশা করছি সে ঠিক আছে। আমি আমার আজকের পারফরম্যান্স তাকে উৎসর্গ করলাম।’

সর্বশেষ খবর অনুযায়ী ডেনমার্কের প্লেমেকার এরিকসেন এখন বিপদমুক্ত। খবরটি জানিয়েছেন বিশ্বস্ত ইতালিয়ান সাংবাদিক ফাব্রিজিও রোমানো। এরিকসেনের বাবাই সে খবর জানিয়েছেন বলে টুইটারে লিখেছেন রোমানো। জার্মান সম্প্রচারক সংস্থা স্পোর্টস্টুডিও জানাচ্ছে, হাসপাতাল থেকে এরিকসেন ফেইসটাইমে সতীর্থদের সঙ্গে কথা বলেছেন।

এরিকসেন অসুস্থ হয়ে যাওয়ার পর ডেনমার্ক–ফিনল্যান্ড ম্যাচটি স্থগিত করেছিল উয়েফা। পরে ম্যাচটি আবার শুরু হয়েছে আর ডেনমার্ক ১–০ গোলে ফিনল্যান্ডের কাছে হেরে গেছে। স্পোর্টস্টুডিও জানিয়েছে, ম্যাচটি চালিয়ে যেতে সতীর্থদের এরিকসেনই অনুরোধ করেছেন। পাশাপাশি এরিকসেন ফেসটাইমে বলেছেন, ‘এখন আগের চেয়ে ভালো আছি।’

কালকের অপর ম্যাচে ভিএআর এর কল্যানে সুইজারল্যান্ডের সাথে ১-১ সমতায় মাঠ ছেড়েছে বেল এর ওয়েলস।

- Advertisement -

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন

Exit mobile version