20 C
Düsseldorf

আবারও রক্তাক্ত হলো কঙ্গো; নিহত কমপক্ষে ৫০

Must read

সাম্প্রতিক সময়ে কঙ্গোয় সব চেয়ে রক্তাক্ত দিন। সন্ত্রাসী হামলায় মৃত অন্তত ৫০। আইএসের সঙ্গে যুক্ত সংগঠন দায়ী বলে সন্দেহ।

ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অফ কঙ্গোর পূর্বাঞ্চলে রাতভর একাধিক জায়গায় আক্রমণ চালাল সন্ত্রাসীরা।
কিভু সিকিউরিটি ট্র্যাকার জানিয়েছে, বোগাতে ২৮ জন মারা গেছেন। ২২ জন মারা গেছেন টিছাবিতে। গোমা থেকে এই জায়গাগুলির দূরত্ব ৩১০ কিলোমিটার। এই এলাকায় অ্যালায়েড ডেমোক্রেটিক ফোর্স খুবই সক্রিয়। তাদের সঙ্গে আইএসের যোগ আছে বলে অভিযোগ। তারাই এই ঘটনার পিছনে বলে প্রাথমিকভাবে সরকারের ধারণা।

কেএসটি বলেছে, কঙ্গোয় ২০১৭ সালের পর এটাই একদিনে সন্ত্রাসী হামলায় সব চেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা।

স্থানীয় এমপি জানিয়েছেন, এখনো মৃতদেহ বের করে আনা হচ্ছে। তাই মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে। অনেক আহত মানুষ ঝোপের আড়ালে লুকিয়ে আছেন।

জাতিসংঘের সূত্র সংবাদসংস্থা এএফপি-কে জানিয়েছে, আক্রমণকারীদের সঙ্গে শান্তিরক্ষা বাহিনীর গুলি বিনিময় হয়। বোগার দুই জন সরকারি কর্মকর্তা এএফপি-কে বলেছেন, যে শিবিরে একটি বিশেষ গোষ্ঠীর উদ্বাস্তুরা ছিলেন, সেখানেই আক্রমণ করে সন্ত্রাসীরা। অন্য উদ্বাস্তু শিবিরে তারা হামলা করেনি। এর আগেও ওই গোষ্ঠীর মানুষ আক্রান্ত হয়েছিলেন।মৃতদের মধ্যে বয়স্ক ও শিশুরাও আছে।

কেএসটি গত শুক্রবার জানিয়েছিল, উত্তর কিভুতে ২০১৯ সালের নভেম্বর মাস থেকে এক হাজার ২২৮ জন হামলায় মারা গেছেন। জাতিসংঘ জানিয়েছে এডিএফ ২০২০ সালে কঙ্গোয় ৮৫০ জনের বেশি মানুষকে হত্যা করেছে। ডিআর কঙ্গো সরকার তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে। তারপর এডিএফ অনেকগুলি ছোট গোষ্ঠীতে ভাগ হয়ে গেছে।

আমেরিকা এডিএফকে সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠী বলে চিহ্নিত করেছে। এই গোষ্ঠীর সঙ্গে আইএসের যোগ আছে বলে তাদের ধারণা।

এএফফি,রয়টার্স।

- Advertisement -spot_img

More articles

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ আপডেট